Friday, November 12, 2021

Biography Of Robin Ahmed

 Robin Ahmed is a Bangladeshi Musical Artist, Blogger, Writer, lyricist And A Solo Traveler. He's Also Known As Gangsta Rbc With His Stage Name.Im currently living in Chhatak.I Was born In Chilahati Nilphamari District and And Later grown up in Chhatak City.From childhood, I wanted to do something different like Nobody Did Before.My most Favourite hobby Is Traveling Around The World And Signing Hip-hop/ Rap Music.

My Fathe Is Md Shafiqul Islam & My Mother Is Somola Begum.

My Social Platform Are Bellow: 

Facebook | Instagram | Twitter | Spotify | YouTube | Telegram

Contact Me On: 

WhatsApp : +88 01738388555

E-Mail : imrobinahmed@gmail.com

Photo Gallery






Saturday, April 10, 2021

How To Get Indian Tourist Visa & Requirements

 How I was for the First Time Got My Indian Tourist Visa For 1 year with Multiple Entry and for that required documents also im mentioned it here.

Indian Tourist Visa🇮🇳

Written Completely In Bengali Language So if you were unable to get it, I'll suggest you to just tap and translate it😊

Here im sharing my India Visa History Included whichever documents i was submitted Through IVEC Sylhet.


ভারতীয় ভিসা প্রসঙ্গেঃ-

#আইভেক_সিলেট ⤵️

আমি এই প্রথম ভারতের ভিসা পাই, একটা বিষয়ে আলোকপাত করতে চাইছি আর সেটা হচ্ছে- পাসপোর্টে ফটোতে নাকি দাড়ি থাকলে ( বোঝা যায় এমন) ভারতীয় ভিসা হয়না - রিজেক্টই নাকি করে দেয়। এমনটা আমি দু"এক জন ট্রাভেল এজেন্ট ও একজন পরিচিত লোকের কাছ থেকে শুনেছি, যার জন্যে ব্যাপারটা খানিকটা চিন্তার হলেও

অবশেষ আমি নিজেই সব ডকুমেন্ট প্রস্তুত করে আবেদন করার সিদ্ধান্ত নেই এবং নিন্মোক্ত ডকুমেন্ট সহ আবেদন করিঃ-

১) অনলাইনে পূরণকৃত আবেদন ফর্ম

(যা যা তথ্যাধি দেওয়ার তা দিয়ে প্রিন্ট নেই, সাক্ষর ও ২x ২ ইঞির একটি ল্যাবপ্রিন্ট সাদা ব্যাকগ্রাউন্ডের ফটো ফর্মে আটা দিয়ে যুক্ত করি নির্ধারিত স্থানে)

২) জন্ম নিবন্ধনের ফটোকপি  ( যেহেতু আমার পাসপোর্ট আমি আমার জন্ম নিবন্ধন দিয়ে করেছি / আমার জাতীয় পরিচয় পত্র  ১ বছর আগে পেয়েছিলাম কিন্তু পাসপোর্টটা জন্ম নিবন্ধনে করেছি তাই জন্ম নিবন্ধনের ফটোকপি দিয়েছি)

৩) বিদ্যুৎ বিলের ফটোকপি  ( গত মাসের বিদ্যুৎ বিলের একটা ফটোকপি দেই যা বর্তমান ঠিকানার সাথে মিল ছিল এমন)

৪) ডলার এন্ড্রোসমেন্টের ফটোকপি ( আমার ব্যাংক একাউন্টে পর্যাপ্ত  পরিমাণ টাকা ছিলোনা তখন তাই,  আমি আমার ব্যাংকের কার্ডটিতে ডলার এন্ড্রোস করে নিয়েছিলাম যার ফটোকপি  আমি আবেদন পত্রটির সাথে দেই)

৫) এনওসি ( আমি ফটোকপি করিনি, মূল কপিটাই দিয়েছি)

৬)  পাসপোর্টের ফটোকপি


৮২৪ টাকা ফি যা আমি যেদিন আবেদন পত্রটি জমা দিতে গিয়েছিলাম তার আগের দিনই অনলাইনে পে করি ( সে ক্ষেত্রে আমি বিকাশ পে মাধ্যমটি ব্যবহার করি)


** আইভেকে অনেকে সব কিছু প্রস্তুত করে নিয়ে গেলেও অনেকের আবেদন ফি সম্পূর্ণ হয়েছে কিনা তা না জেনেই চলে যান,  আর সেটা অনেকে ট্রাভেল এজেন্টদের দিয়ে আবেদন করান আমি যতোটুকু বুঝতে পেরছি তাই আবেদন কারি কে যখন আবেদন ফি অনলাইনে পে করার স্লিপ/ কনফার্মামেশন এসএমএস দেখাতে বলা হয় তখন তারা তা দেখাতে পারেন না তাই আইভেকে তাদের আবেদন পত্রটিও জমা নেয় না। তাই আপনি নিজে করেন আর অন্যকে দিয়ে করান আবেদনের ফি টা দেওয়ার এসএমএস বা পে ইনভয়েসটি সংগ্রহ করে সাথে নিয়েন বারতি ঝামেলা এড়াতে **


*অনেকে ডলার এন্ডোসমেন্ট দিয়ে আবেদন করেছেন

অনেকে ব্যাংক স্টেটমেন্ট দিয়ে

সবগুলোই জমা নিয়েছে ( আমি আমার সিরিয়াল টা আসা অবদি সবারই জমা নিতে দেখছি।

--আমি আবেদন পত্রটি ০১/১০/২০১৯ তারিখে জমা দেই এবং

গতোকাল ( ১৫/১০/২০১৯) আমার পাসপোর্ট ডেলিভারির তারিখ ছিল, তাই ৩:০০ টার মধ্যেই আইভেকে পৌছাই ও ১৫ মিনিটের মধ্যেই পাসপোর্ট নিয়ে ফিরি।

এবং সাথে ১ বছরের মাল্টিপল এন্ট্রির ভিসা ও পাই।

#খালেদ ভাইকে অসংখ্য ধন্যবাদ🤗রীতি মতো খুটিনাটি বিষয়েও ভাইকে অনেক নক করেছি যেহেতু প্রথমবারের মতো আর প্রথম ভিসা আবেদন করতেছিলাম তাই অনেকটা নার্ভাস ছিলাম, ভাই কিন্তু  অনেক হেল্পফুল পারসন সাথে গ্রুপের সদস্যরাও।

( লেখাতে কোনো ধরনের ভূল ত্রুটি থাকলে বলবেন সংশোধন করে নিব,  ধন্যবাদ 🙂)


ভ্রমনকারিদের জন্যই পৃথিবী, 🌎

"সলো ট্রাভেলার অব বাংলাদেশ"💙


Thursday, April 1, 2021

Who Is STEPPENWOLF??


 Justice League Synder Cut এ দূর্দান্ত সব সুপারহিরো আর ভিলেনদের ভীড়ে আমরা ভুলে যাচ্ছি মুভির অন্যতম ভিলেন Steppenwolf র কথা। Steppenwolf হলো Darkseid এর Dog Cavalry আর্মির প্রধান কমান্ডার। আর সে কীরকম শক্তিশালী একজন ভিলেন সেটা আমরা মুভিতে তার ফাইট সিনগুলো দেখেই বুঝতে পেরেছি।


Steppenwolf ক্যারেক্টারটি মূলত তৈরি করেন জ্যাক কিরবি। ১৯৭২ সালে New god 7 comic book এ steppenwolf এর প্রথম এপিয়ারেন্স ঘটে। Steppenwolf হলো Darkseid এর আঙ্কেল। Darkseid ছোটবেলা থেকেই ইভিল সত্তার অধিকারী ছিল। তার ইচ্ছা ছিল New genesis প্ল্যানেটে  আক্রমণ করার। এই New genesis হলো মহাবিশ্বের good god দের বসবাসের স্থান।  যেটাকে বাকি অধিবাসীরা Paradise মনে করে। গুড গডরা বাকি অধিবাসীদের থেকে নিজেদের আলাদাই রাখে। পরে darkseid  স্টিফেনওল্ফসহ বিশাল আর্মি নিয়ে নিউ জেনেসিসের গুড গডদের আক্রমণ করে। এই ফাইটটা ঘটে থাকে ফর্থ ওয়ার্ল্ডে। ফর্থ ওয়ার্ল্ড হলো এমন এক স্থান যেখানে অনন্তকাল ধরে গুড গড আর ডেভিল গডদের মধ্যে মারামারি হতে থাকে। আর এভাবেই জন্ম নেয় APOKOPLIPS. এই যুদ্ধের এক পর্যায়ে নিউ গডদের লিডার হাই-ফাদারের সাথে স্টিফেনওল্ফদের ফাইট হয়। আর স্টিফেনওল্ফ  ভুলবশত হাই ফাদারের স্ত্রীকে মেরে ফেলে। তাই হাই ফাদার ক্রোধান্বিত হয়ে স্টিফেনওল্ফকে মেরে ফেলে।


Apokolips হলো শয়তানদের নরক টাইপের স্থান যেটা আগে New Genesis ছিল।  যুদ্ধের কারণে এই রুপ নেয়। আর darkseid এটার লিডার হয়ে যায়। এখানেই মূলত বোম্বটিউব ব্যবহৃত হয়, যেটার মাধ্যমে যেকোন গড নির্দিষ্ট সাইজে কনভার্টেড হয়ে তাদের গন্তব্যে যেতে পারে৷ আর এই বোম্ব টিউবটাই চালিত হয় 'মাদার বক্স' দ্বারা, যেটা সম্পর্কে আমরা জাস্টিস লিগ মুভিতে বিস্তারিত জেনে ফেলেছি। এই প্ল্যানেটে মূলত নিম্নমানের নাগরিক হাঙ্গার ডগসরা বসবাস করে। যাদের কোন অনুভুতি নেই, যারা শুধুমাত্র  প্লানেটটার এনার্জি কূপকে টিকিয়ে রাখার জন্য কাজ করে যায়, যেটা লাইট আর পাওয়ার সাপ্লাই করে। এরা মূলত ডার্কসাইডের দাস।  আর এই Apokolips জগতটা হলো একটা ব্যর্থ স্থবির সমাজ, যেখানে অধিবাসীরা প্রতিনিয়ত অবহেলিত আর জুলুমের শিকার হয়🙂।


POWER & ABILITY 




পরবর্তীতে ডার্কসাইড একটা ওয়ারে স্টিফেনওল্ফকে আবার জীবিত করে আর Apokolips এর মিলিটারি লিডার বানিয়ে দেয়।  স্টিফেনওল্ফ মূলত অমর, যে কখনোই মরে না৷ তার রয়েছে হাজার বছরের ফাইটিং এক্সপেরিয়েন্স যার কারণে শত শত আর্মির সাথে সে একাই লড়তে পারে। সে এতটাই শক্তিশালী যে একটা ১০,০০০ টনের বস্তুকেও উঁচু করে তুলে ধরে ছু্ঁড়ে মারতে পারে। তার রয়েছে সুপার হিউম্যান রিফ্লেক্স ফ্যাক্সিসিবিলিটি যেটার ফলে সে একটা তুমুল শক্তিশালী আক্রমণকেও ঠেকাতে পারে। তার মূল অস্ত্র হলো বৈদ্যুতিক কুড়াল যেটা প্রচন্ড বিপদ্দজনক। আর ক্যাবল ফাঁদের মাধ্যমে সে অতি সহজে এনিমিকে কাবু করে ফেলতে পারে।  তার শক্তিশালী প্রতিরোধ ক্ষমতার জন্য কেউ তাকে শত বিষ খাওয়ালেও সে মরে না।


Steppenwolf মূলত DC Comics এর একটা আন্ডাররেটেড ভিলেন ছিল।

Thursday, March 25, 2021

Who Is Darkseid!!!


 Zack Snyder এর জাস্টিস লীগে আমরা দেখেছি মেইন antagonist হিসেবে ডার্কসাইড কে। ডার্কসাইড ডিসির অন্যতম সেরা একজন ভিলেন, বলা যায় পোস্ট ক্রাইসিস সময়ে সেই জাস্টিস লীগের মেইন ভিলেন। কেন ডার্কসাইড এত্ত awesome?

 lets discuss 10 amazing facts about darkseid. 


১. ডার্কসাইডের ক্রিয়েটির Jack Kirby ১৯৭০ সালে(থানোসের ৩ বছর আগে।) ডার্কসাইড ক্যারেক্টার টি বানানো হয়েছে "হিটলার" কে কেন্দ্র করে।


 ডার্কসাইড এর আসল নাম Usax সে apoklips এর কিং। ওভার দ্যা টাইম ডার্কসাইডের ২ টা অরিজিন অর্থাৎ একটা pre crisis origin আরেকটি নিউ  52 অরিজিন। 

আগের অরিজিন হিসেবে, ডার্কসাইডের বাবা ছিল apoklips এর রাজা, এবং তারা ছিল ২ ভাই। তার বড় ভাই রাজা হওয়ার কথা থাকলেও ডার্কসাইড তার বড় ভাইকে মেরে ওমেগা পাওয়ার absorb করে এবং তার স্কিন পাথরে বদলে যেয়ে সে হয় ডার্কসাইড। 


আর নিউ 52 অনুযায়ী,  ডার্কসাইড থাকে একজন এভারেজ ব্যক্তি যে কিনা ঘৃণা করে ওল্ড গড দের। একদিন সুযোগ বুঝে সে ওল্ড গডদের মধ্যে যুদ্ধ বাধিয়ে দেয় এবং সকল ওল্ড গডদের মেরে তাদের পাওয়ার absorb করে হয়ে যায় ডার্কসাইড। 


৩. ডার্কসাইডে পুরা ডিসি ইউনিভার্সে মাত্র ৩ জন কে ভয় পায়। - অবশ্যই ডিসির God(look at the capital G) যে সর্বশক্তিমান অর্থাৎ The presence. Because The presence is the God and everyone is obliged to ans to Him. isn’t it obvious? 

- Orion, ডার্কসাইডের পুত্র beacuse he is destined to kill darkseid

- The Highfather নিউ জেনেসিসের শাসক এবং একজন নিউ গড যে ভাল এবং সুন্দরের প্রতীক। 


৪. ডার্কসাইড তার ভাইকে হত্যা করার পরে তার মা কেও বিষপানে হত্যা করে। কারণ তার মা তার একমাত্র প্রেমিকা/স্ত্রী কে বিষপানে হত্যা করেছিল। তার মা ভাবত, ডার্কসাইড প্রেম ভালোবাসায় মজে গেছে। 🐸 আমাদের দেশের মত টিপিক্যাল না?! 😂 


৫. ডার্কসাইড চায় পুরা ইউনিভার্সের সকল জীব জগত মিটিয়ে দিয়ে নিজের মত করে তৈরি করতে, সমস্ত ইউনিভার্স শাসন করতে। আর ওই জন্যেই একের পর এক সোলার সিস্টেম, গ্রহ দখলে করতে চায় সে। 


৬. একজন সুপার ভিলেনের যে যে পাওয়ার থাকা উচির ডার্কসাইডের তার সবি আছে। সে omnipotent অর্থাৎ তাকে মেরে ফেলা সম্ভব নয়। তার অসাধারণ রিজেনারেশন পাওয়ার, একবার তো ছাই থেকেও সে নিজেকে রিজেনারেশন করেছে। সে যে কাউকে resurrect করতে পারে। হ্যান্ড টু হ্যান্ড কমব্যাটে সে অসাধারণ,  ডিসির প্রায় সকল হার্ড হিটার তার কাছে নাস্তানাবুদ হয়েছে, এমনকি পুরা জাস্টিস লীগের সকল হার্ড হিটার মিলেও তাকে স্যারেন্ডার করাতে অক্ষম। একবার তো খালি হাতে গ্রিন ল্যান্ট্রেনের রিং ভেঙ্গে ফেলে ডার্কসাইড। এছাড়া শেফ শিফিটিং, টেলিপোর্টেশন, মাইন্ড কন্ট্রোল তো আছে। তার মাইন্ড কন্ট্রোল এতই পাওয়ারফুল যে একবার সে martian manhunter কেও কন্ট্রোল করেছে। এছাড়া ওমেগা বীম তো আছে যা যে কাউকে existence থেকেই মুছে দিতে পারে, অথবা টাইম লুপে আটকে দিতে,  যেটা ডার্কসাইডের ইচ্ছে। একবার ওমেগা বীম ফায়ার হলে তা লক্ষ্যে লক হয়ে যায় এবং ডার্কসাইডের ইচ্ছে অনুযায়ী আঘাত হানে। তাই ওমেগা বীম থেকে বাচা প্রায় অসম্ভব। 


৭. ডার্কসাইডের আছে বিশাল parademon বাহিনী যাদের সংখ্যা ইনফিনিটি। এবং রিসেন্টলি মুভিতে দেখা যায় ডার্কসাইড তার Para demon দের জীন upgrade করেছে doomsday জীন দ্বারা।  অর্থাৎ ইনফিনিটি হাফ doomsday বাহিনী। 🐸 Can you imagine how scary is that? 


৮. ডার্কসাইড কে ভালো লাগার আরেকটা ব্যাপার তার attitude. দুই হাত পেছনে দিয়ে উড়ে আসা, সাহিত্যিক ভয়ংকর ডায়লগ ডেলিভারি দেয়া, কিংবা ২-৪ টা হার্ড হিটে "আরে এ আর এমন কি" ভাব ধরে থাকা, ভয়ংকর ভারী কন্ঠ এবং প্রয়োজন মত নিজের আকার পরিবর্তন করতে পারা তাকে সুপার ভিলেন দের মধ্যে এক আলাদা জায়গা করে দেয়। তার পাওয়ার লিমিটলেস এবং সে কখনো টায়ার্ড হয়না। একবার হাইফাদারের সাথে নিরন্তর ৭ দিন কমব্যাট করেছিল কোন ক্লান্তি ছাড়া। He is one the smartest 


৯. ডার্কসাইডের দূর্বলতা, constant searching of anti life equation এটি এমন এক সূত্র যার সাহায্যে সারা ইউনিভার্সের সকল জীব প্রাণীর জীবন নিয়ন্ত্রণ করা যায় যেটা ডার্কসাইডের লক্ষ্য পূরণে সাহায্য করবে। আর এই সার্চ করতে যেয়ে সে যেকোন কিছু করতে প্রস্তুত বা ছাড়তে প্রস্তুত এবং কমিকে সে anti life equation খুজে পেয়েও যায়। snyder cut এ আমরা দেখেছি সে anti life equation এর খোজেই পৃথিবীতে আসবে। আরেক দূর্বলতা radion নামক এক মেটাল যার সোর্স কেউ জানেনা, এটা সকল নিউ গডের দূর্বলতা। একবার ব্যাটমান তাকে রেডন বুলেট দিয়ে শ্যুট করেছিল যদিও ডার্কসাইড এই শ্যুটের পরেও বেচে যায়। 


১০. এবং সবচে সবচে সবচে awesome fact কমিক, মুভি বা অন্যান্য যত জায়গায় ডার্কসাইড কে দেখা যায় তার কোনটাই ডার্কসাইডের আসল রূপ নয়। সবি তার avatar. তার আসল রূপ আজ অবধি কোথাও দেখায় যায় নাই। সে তার particular জবের জন্য এক একটা avatar তৈরি করে৷ মনে করি সুপারম্যান darkseid কে হারিয়ে দিয়েছে, আসলে সে ডার্কসাইড কে হারায়নি, হারাইছে তার avatar কে। একমাত্র হাইফাদার অর্থাৎ নিউ জেনেসিসের রুলার ডার্কসাইডের আসল রূপ দেখেছে এবং লড়াই করেছে৷ আর এই জন্য ডার্কসাইড কে মেরে ফেলা সম্ভব নয়। সে একটা concept, the embodiment of the bad. He is beyond dimensions,beyond time and space, lives in every dimensions. The original Darkseid is so powerful that সে কখনো রিয়েলিটি তে আসেই না, আসলেই মাল্টিভার্স ডেস্ট্রয় হয়ে যাবে এবং ইনফিনিটি রিয়েলিটি ক্রিয়েট হয়ে যাবে।  Yes Darkseid is that much powerful


reference from Multiple comics

DC animated Movies 

JL snyder cut

Biography Of Robin Ahmed

  Robin Ahmed is a Bangladeshi Musical Artist, Blogger, Writer, lyricist And A Solo Traveler. He's Also Known As Gangsta Rbc With His S...